সম্পাদকীয়

রচনা  : কল্পবিশ্ব

অলঙ্করণ : দেবজ্যোতি ভট্টাচার্য্য (চিত্রচোর)

প্রিয় কল্পবিশ্বের বন্ধুরা,

     আবার এসেছে আষাঢ় আকাশ ছেয়ে – গ্রীষ্মের নির্মম দাবদাহের শেষে শান্তির আশ্বাস নিয়ে আসে বর্ষাকাল। কিন্তু আজকাল যেন ঋতুগুলির গতিপ্রকৃতি বোঝা ভার। কখনও রেকর্ড ভাঙা তাপমাত্রা, আবার কখনও অকালবৃষ্টি! শীতের পরশ কখন যে আমাদের ফাঁকি দিয়ে চলে যায় বোঝা দায়। প্রবীণরা প্রায়ই বলেন, দেশের আবহাওয়া যেন আগের মতো আর নেই। তবে এটা কিন্তু শুধু আমাদের দেশের কথাই নয়, সারা পৃথিবীর বিজ্ঞানীরা চিন্তিত জলবায়ুর পরিবর্তন নিয়ে। জৈব তেলের ব্যবহার, গ্রীনহাউস গ্যাসের আধিক্য, নির্বিচারে অরণ্য উচ্ছেদ এবং এরকম আরও অনেক মানব জাতির তৈরি করা সমস্যার প্রভাবে পালটে যাচ্ছে সারা পৃথিবীর জলবায়ু, লোপ পাচ্ছে হাজার হাজার প্রজাতি মানুষের লোভের শিকার হয়ে।

      “…, there is a strong, credible body of evidence, based on multiple lines of research, documenting that climate is changing and that these changes are in large part caused by human activities. While much remains to be learned, the core phenomenon, scientific questions, and hypotheses have been examined thoroughly and have stood firm in the face of serious scientific debate and careful evaluation of alternative explanations.”

— United States National Research Council, Advancing the Science of Climate Change

     তবে শুধু বৈজ্ঞানিক গবেষণাই যথেষ্ট নয়। এই বিপদের ভয়াবহতা সম্পর্কে সচেতন করতে হবে সাধারণ মানুষকেও। ক্লাই-ফাই বা ক্লাইমেট ফিকশন সাহিত্যের একটি নতুন উপশাখা, যার বিষয়বস্তু জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট নতুন পৃথিবীর কথা। সাংবাদিক ড্যান ব্লুম চালু করেছেন এই শব্দ বন্ধটি, যদিও তার বহু আগে থেকেই ভের্ন, ব্যালার্ড বা আটউডের মত বিখ্যাত সাহিত্যিকরা লিখে গেছেন এমন কাহিনি।

     কল্পবিশ্বের বয়স বাড়ছে, সঙ্গে বাড়ছে দায়িত্বও। বাংলার একমাত্র কল্পবিজ্ঞান ভিত্তিক পত্রিকা হিসেবে আমরা অবহেলা করতে পারি না এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। তাই শুধু বাংলায় নয়, হয়তো সারা ভারতে এই প্রথম ক্লাই-ফাই নিয়ে প্রকাশিত হল একটি পত্রিকার সংখ্যা। কল্পবিশ্বের তৃতীয় বর্ষ দ্বিতীয় সংখ্যায় থাকছে ক্লাই-ফাই এর উপর প্রচ্ছদ, প্রবন্ধ, গল্প, উপন্যাস, স্বয়ং ড্যান ব্লুমের সাক্ষাৎকার এবং আরও কত কিছু।

     এছাড়াও কল্পবিশ্ব মেতে উঠেছে আরও নতুন নতুন প্রজেক্ট নিয়ে। কাজ চলছে একাধিক কল্পবিজ্ঞান সংক্রান্ত প্রিন্টেড বইয়ের। বাংলার প্রথম কল্পবিজ্ঞান কনফারেন্সের আয়োজন আমরা করতে চলেছি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরাজী বিভাগের সঙ্গে মিলিতভাবে। কল্পবিশ্বের প্রতিটি সংখ্যার সঙ্গে আমরা নিয়মিতভাবে ইবুক বের করে চলেছি বিভিন্ন ডিজিটাল মাধ্যমে। সত্যিই যেন কল্পবিশ্বকে সামনে রেখে কল্পবিজ্ঞানের এক নতুন কর্মযজ্ঞ শুরু হয়েছে।আসুন পাঠক, সামিল হন আমাদের সঙ্গে এই বিপ্লবে, হাতে হাত রেখে এগিয়ে যাই এক নতুন ভোরের দিকে।

     প্রিয় পাঠক, আপনি তৈরি তো? 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!